কুষ্টিয়া লালন আখড়াবাড়িতে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী সাধুসঙ্গ, বাউল গান ও লালন মেলা।

219

কুষ্টিয়া লালন আখড়াবাড়িতে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী সাধুসঙ্গ, বাউল গান ও লালন মেলা। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে দুই দিনব্যাপী এই লালন মেলা উদ্বোধন করা হয়।
এ উপলক্ষে লালন একাডেমি মিলনায়তনে ‘লালন সাঁই মরমি মৃত্তিকার ফসল’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন- গবেষক প্রফেসর ড. আবুল আহসান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক ছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুজিব উল ফেরদৌস, কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার (এসপি) প্রলয় চিসিম, প্রবীণ লালন অনুসারী শিল্পী নহির শাহ্, লালন একাডেমির সদস্য জাহিদ হোসেন, শিক্ষক ও গবেষক জেসমিন বুলি প্রমুখ। সেমিনারে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা লালন ভক্ত, অনুসারী, শিল্পী ও সুধীজনরা উপস্থিত ছিলেন।
কুষ্টিয়া শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম জানান, কিছুদিন আগে তিরোধান দিবসের অনুষ্ঠান শেষ হয়েছে। লালনের আদি সুর ও কৃষ্টি ধরে রাখতে শিল্পকলা একাডেমি কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় কুষ্টিয়ার লালন ধামে দুই দিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে সারাদেশ থেকে বাউলরা এসেছেন। আরও অনেকে আসবেন। লালনকে নিয়ে আলোচনা হবে। সেই সঙ্গে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও লালনের আদি সুরে গান উপভোগ করতে পারবেন সবাই। এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে লালনের যে দর্শন তা মানুষ জানতে পারবেন।

সারাদেশ থেকে চার শতাধিক বাউল এসেছেন। এছাড়া উৎসবে দেশের প্রতিটি জেলা থেকে ৬৪ জন তরুণ লালনসংগীতশিল্পী, ৪০ জন বাউল ও লালনসংগীতশিল্পী অংশ নিচ্ছেন।

LEAVE A REPLY