চুয়াডাঙ্গায় ধর্ষিতা শিশুর পাশে পুলিশ সুপার নিজাম উদ্দীন

97

শিশু ধর্ষণের ঘটনা শোনার পর গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ জাম উদ্দীন শিশুটিকে দেখার জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ছুটে যান। এসময় তিনি শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো সহ তার চিকিৎসার সার্বিক খোঁজ খবর নেন এবং হত-দরিদ্র পরিবারের ধর্ষণের শিকার বাক প্রতিবন্ধি শিশুটির চিকিৎসা সেবার জন্য তার মায়ের হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা তুলে দেন।

পরে তিনি দামুড়হুদার কুড়ালগাছী গ্রামের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। সেখানে অপরাধিদের খোঁজ নেন এবং তাদের আটক করেন। পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে গতকাল সন্ধ্যায় ধর্ষক আমির ও তার সহযোগী খামার মালিক মনিরুজ্জামান মন্টু সহ দুজনকে আটক করা হয়।

উল্লেখ্য গতকাল সোমবার সকাল অনুমান দশটার দিকে দামুড়হুদা থানার কুড়ুলগাছী গ্রামের লম্পট যুবক আমির নয় বছরের এক বাক প্রতিবন্ধী শিশুকে মনিরুজ্জামান মন্টুর মুরগীর খামারের দ্বিতীয় তলা নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটি চিৎকার দিলে ধর্ষক অপরাধ ঢাকতে শিশুটিকে হত্যার উদ্দেশ্যে খামারের দ্বিতীয় তলা থেকে নিচে ফেলে দেয়।

পুলিশ সুপার নিজাম উদ্দীন জানান, শিশুটি ধর্ষনের সাথে যারা জড়িত তাদের শাস্তির ব্যপারে পুলিশের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগীতাসহ তার চিকিসা সেবার জন্য সহযোগীতা অবব্যহত থাকবে।

মামুন মোল্লা, চুয়াডাঙ্গা
০১৯১৮৩৩৭১১৩

LEAVE A REPLY