জাতীয় কবিতা মঞ্চ সংযুক্ত আরব আমিরাত শাখার উদ্যোগে আয়োজিত হলো মহান বিজয় দিবস ও সাহিত্য সম্মেলন ২০১৬

279

আমিরাত থেকে মুহাম্মদ মুসা, সভাপতি, জাতীয় কবিতা মঞ্চ, সংযুক্ত আরব আমিরাত শাখা :

কাব্য সৃষ্টির আলোয় আমাদের সমাজ আলোকিত হোক আরও সমৃদ্ধি হোক এই প্রত্যয় নিয়ে সমাপ্ত হল জাতীয় কবিতা মঞ্চ সংযুক্ত আরব আমিরাত শাখার উদ্যোগে আয়োজিত “মহান বিজয় দিবস ও সাহিত্য সম্মেলন ২০১৬” একটি উদীপ্ত জাগরণী ‘’কবিতা হোক অধিকার আদায়ের শ্লোগান’’ এর শাশ্বত কবিতার বাণী দিয়ে শুভ সূচনায় অনুষ্ঠানে প্রদীব জ্বেলে শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে প্রজ্বলিত আলোয় ভরে উঠে মহান বিজয় দিবস ও সাহিত্য সম্মেলন১৬।

জাতীয় কবিতা মঞ্চ আরব আমিরাত এর সভাপতি কবি মুহাম্মদ মুসা এর সভাপতিত্বে অনুষ্টানের প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন বাংলাদেশ সমিতি, সংযুক্ত আরব আমিরাত এর সম্মানিত সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন। উদ্বোধক জাতীয় কবিতা মঞ্চ আরব আমিরাত শাখার প্রধান উপদেষ্টা বিশিষ্ট শিল্পপতি সমাজ সেবক সাহিত্যিক শিক্ষানুরাগী মাজহার উল্লাহ্‌ মিয়া।
প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম তালুকদার। বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন টাইম ট্রাভেল, চেয়ারম্যান, কবি ও আবৃত্তিকার মোহাম্মদ আলী মানসূর । মহান বিজয় দিবস উদযাপন ও সাহিত্য সম্মেলন ১৬, প্রাণবন্ত হয় কবিতা পাঠ আলোচনা সভা , গুণীজন সংবর্ধনা, সাংস্কৃতিক আসর ও কবি ও সাহিত্যিক মুহাম্মদ মুসার একক কবিতা আবৃত্তির সিডি’র এ্যালবাম “শ্রাবণের মেঘ” এর মোড়ক উম্মোচন ।

প্রবাসের বিশিষ্ট গুণী কবি সাহিত্যিক লেখক সাংবাদিক বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্ধ উপস্থিত ছিলেন উক্ত মহান বিজয় দিবস ও সাহিত্য সম্মেলন১৬। কবি ও সাহিত্যিক মোহাম্মদ মুসা একক সিডি’র এ্যালবাম “শ্রাবণের মেঘ” এর মোড়ক উম্মোচন দীর্ঘদিনের শ্রম, ঘাম, মেধা ও বোধের শৈল্পিক পরিচর্যায় নির্মিত শ্রাবণের মেঘ একক কবিতা আবৃত্তি এ্যালবামের মোড়ক উম্মোচন ও আবৃত্তি সন্ধ্যায় শ্রোতারা অধীর নীরবতায় সংস্কৃতির সুধাপানে সুন্দর সময় অতিক্রম করেন।
শ্রোতাদের সুপ্ত হৃদয়-মনকে ছুয়েঁছেন সকলের সম্মিলিত দীর্ঘদিনের প্রতিভার স্ফূরণের সৃজনশীলতায়। আবৃত্তি ছিল আনন্দময়, কাঙ্খিত, অনুপ্রেরণাপূর্ণ। যেখানে আবহ সংগীত আবৃত্তির মান ও এ্যালবামের কাটতি বাড়িয়েছে। এ শিল্পের পেশাদারিত্ব ভাবনাকে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। শ্রোতাদের প্রশংসার পাশাপাশি আবৃত্তি যে শিল্প সে স্পন্দনও আত্মহনন সমাজকে আত্মমর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করতে সহযোগিতা করবে। শ্রাবণের মেঘ এ্যালবামে মোট ১১ টি কবিতা স্থান পেয়েছে।

একজন কবি এবং কবিতানুরাগী, স্বদেশপ্রেম এবং স্বদেশী সংস্কৃতির সাথে তার আত্মার সংশ্লিষ্টতা। কৃতজ্ঞতা জানাই টাইম ট্রাভেলস এন্ড কার্গো এল এল সি এর স্বত্বাধিকারী কবি ও আবৃত্তিকার যার সার্বিক সহযোগিতায় শ্রাবণের মেঘ এ্যালবাম টি আলোর মুখ দেখে। আলোচক বৃন্ধের সাহিত্যের বর্ণিল আয়োজনে মাইলফলক সফলতার একটি চমৎকার সন্ধ্যা একটি মহতী অনুপম আয়োজন, অনেকগুলো আলোকিত মানুষের মিলন মেলা ও স্নিগ্ধ সান্নিধ্য, আত্মার আত্মীয়দের সাথে নির্মল আনন্দে কথোপকথন, কাব্য-সঙ্গীত-নৃত্যের ছোঁয়ায় মন ভিজিয়ে আনন্দ-অনুভবের আবেশে আপ্লুত হওয়া- সবকিছু মিলিয়ে এটি ছিল একটি ব্যতিক্রমধর্মী ব্যঞ্জনাময় চমৎকার অনুষ্ঠান।

গত ২১ ডিসেম্বর রোজ বুধবার চির সবুজ শহর এর প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত কিনারা রেস্টুরেন্টে বিজয় দিবস উদযাপন ও সাহিত্য সম্মেলন ১৬ এ অনুষ্ঠানটি শুরু হয় স্থানীয় সময় সন্ধ্যা রাত ৯ টায়। বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাঙালির উপস্থিতিতে বিজয় দিবস উদযাপন ও সাহিত্য সম্মেলন১৬ বিজয় দিবস অনুষ্ঠান পরিণত হয় স্থানীয় বাঙালিদের এক মিলনমেলায়। ৬ ঘণ্টার বৃস্তিত এই আয়োজনে ছিল রবীন্দ্রসঙ্গীত, নজরুলগীতি, লোকগীতি,নৃত্য, আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ, গুণিজন সংবর্ধনা।

মহান বিজয় দিবস উদযাপন ও সাহিত্য সম্মেলন ১৬ অনুষ্ঠান প্রদীপ জ্বেলে শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে অনুষ্ঠান শুভ উদ্বোধন করেন জাতীয় কবিতা মঞ্চ আরব আমিরাত প্রধান উপদেষ্টা, বিশিষ্ট শিল্পপতি, সমাজ সেবক, সাহিত্যিক শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব মাজহার উল্লাহ্‌ মিয়া।স্বাগত বক্তব্যে রাখেন জাতীয় কবিতা মঞ্চও দৈনিক যুগান্তর স্বজন সমাবেশ,আরব আমিরাত শাখা,উপদেশষ্টা,কবি নজরুল সাহিত্য পরিষদ, আরব আমিরাত শাখা প্রধান উপদেষ্টা, লুলু ফ্যাশনে চেয়ারম্যান, মোহাম্মদ সাইফুল আলম সাইফ ও ঢাকা প্রবাসী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন লস্কর রুমি বিশেষ অথিতি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কবি জানে আলম জাহাঙ্গীর,ডাঃ আজিদ উল্ল্যাহ, এইচ.এম.ফারুক হোসেন, সাংবাদিক সিরাজুল হক ,মোহাম্মদ আবদুল আলীম সাইফুল,মোহাম্মদ সিরাজদ্দৈালা মামুন, মোহাম্মদ তারেকুর রহমান চৌধুরী রুবেল,কবি আরিফ ইসলাম, প্রকৌশলী মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম,আহামেদ আলি মিজান, আলহাজ্ব মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন ইউ এ ই বাংলা ব্যান্ডের পরিচালক বিশিষ্ট শিল্পী ও সুরকার, প্রকৌশলী মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, কাজী ফারুক, শিহাব সুমন, আবু সাদাত নয়ন জিনুক সোহেল ও তার দল,আশা, আন্যন আলমগির, ফরাদ,হোসেন, ফারানা, তাহানা প্রমুখ।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে রাখেন জাতীয় কবি মঞ্চ ও দৈনিক যুগান্তর স্বজন সমাবেশ, সহ সভাপতি, কবি ও সাংবাদিক ওবাইদুল হক বলেন আমরা বাংলাদেশের জাতীয় বিশেষ উৎসবের উদযাপন দিন গুলো সার্বজনীন সকল প্রবাসী সমাজ কে সম্পৃক্ত করে অংশ গ্রহণ ভিত্তিতে অধিকার সংরক্ষণ করি সকলের জন্য কবিতা মঞ্চের দ্বার সদা উম্মুক্ত।
সাধারণ সম্পাদক মনির উদ্দিন মান্না বলেন সফলতা লাভে কিছু তীব্র পরিশ্রমের অধ্যায় থাকে সব সাফল্যের গল্পে কিছু উৎসাহ দেওয়ার মত মানুষ থাকে তেমনি কবিতা মঞ্চের সদস্যদের অনুপ্রেরণা আমাকে অনেক দুর এগিয়েছে আজ আমি নতুন পুরানোর মধ্যপথে দাঁড়িয়ে নতুন স্বপ্ন নতুন কিছুর প্রাপ্তির প্রত্যাশা করি এগিয়ে যান এগিয়ে দিন আগামীর নতুন সূর্য বদলে দেবে জীবনের সংজ্ঞা বদলে যাবে মনন প্রতিভার শুভ বিকাশ আপনাদের স্বপ্নগুলো হোক ফলবতী সময়ের হাত ধরে এগিয়ে চলে মানুষ পৃথিবী সভ্যতা সমাজ দেশ জাতি।

প্রধান উপদেষ্টা বিশিষ্ট শিল্পপতি সমাজ সেবক ও সাহিত্যিক শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব মাজহার উল্লাহ্‌ মিয়া বলেন আগামীতে সাধারণ প্রবাসীরা যেন এমন সুন্দর অনুষ্টান উপভোগ থেকে উপেক্ষিত না থাকে সেই পরিকল্পনা সাপেক্ষে আগামীতে আরও বিস্তৃত পরিসরে অনুষ্টান আয়োজন করার পূর্ব ঘোষণা প্রদান করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্য বলেন জাতীয় কবিতা মঞ্চ প্রবাসে একটি প্রদীপ্ত আলোক বর্তিকার নাম বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি জাগরণে অনস্বীকার্য ভূমিকা রাখছে এই সংগঠনটির অগ্রগতি সাহিত্য সেবা নিরবিচ্চিন্ন ভাবে প্রদান কল্পে সামাজিক ও আইনি অবকাঠামোর মধ্যে সকল প্রকার সাহায্য সহযোগিতা বাংলাদেশ সমিতি থেকে অব্যহত রাখার দীপ্ত আশা বাদ ব্যক্ত করেন।

জাতীয় কবিতা মঞ্চ আরব আমিরাত সভাপতি কবি মুহাম্মদ মুসা সমাপনী বক্তব্যে তুলে ধরেন প্রবাসী কবি লেখকদের এমন মহৎ উদ্যোগ সৃজনশীলতাকে এগিয়ে নিয়ে যাবে, সাহিত্যকে করবে সমৃদ্ধ, এদের হাত ধরেই এগিয়ে যাবে বিশ্ব শান্তি ও সমৃদ্ধির প্রতীক অনির্বাণ কবিত । প্রবাসে শ্রমের পাশাপাশি তরুণদের সৃজনশীল কাজে এগিয়ে আসতে হবে এটা সম্ভব হলে তরুণরাই আমাদের সমাজ বদল করতে পারবে। আর তরুণদের চলার পথে অগ্রজরা বরাবরই তাদের ছায়াসঙ্গী হিসাবে জুগাবে উৎসাহ উদ্দীপনা এ ধরনের মহতী আয়োজন সব সৃজনশীল মানুষের জন্য করতে পারলেই স্বার্থকতা আসবে বিশেষভাবে যাদের অক্লান্ত পরিশ্রম মেধা দিয়ে সফল উদযাপনের সার্থকতার অবদান রেখেছেন ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করি কবিতা মঞ্চের সেইসব প্রতিভাবান ব্যক্তিত্বের প্রতি যাদের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা, আয়োজন, ব্যবস্থাপনা এবং পরিচালনায় সহযোগিতা করেছেন।

LEAVE A REPLY