বিরল রোগে আক্রান্ত আব্বাসকে সিরাজুল ইসলাম মেডিকেলে ভর্তি

79

মোনাসিফ ফরাজী সজীব,মাদারীপুর প্রতিনিধি॥

বিরল রোগে আক্রান্ত মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার ১৩ বছরের কিশোর আব্বাস শেখের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়ে তার চিকিৎসা শুরু করেছে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হসপিটাল লিমিটেড। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে আব্বাসকে নিয়ে তার বাবা রাজ্জাক শেখ রাজধানীর মালিবাগে অবস্থিত ডা. সিরাজুল ইসলাম হাসপাতালে পৌঁছলে জরুরি বিভাগে তাকে ভর্তি করা হয়।

সিরাজুল ইসলাম মেডিকেলের জনসংযোগ ও তথ্য কর্মকর্তা সুব্রত মন্ডল জানান, জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. মেহেদী হাসান রাজু আব্বাসের শরীর প্রাথমিকভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সার্জারি বিভাগে ভর্তির জন্য পরামর্শ দেন। আব্বাসকে ১০০৭ নম্বর কেবিনে হাসপাতালের জেনারেল সার্জন সহযোগী অধ্যাপক ডা. এ কে এম রুহুল আমীনের অধীনে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. মেহেদী হাসান রাজু বলেন, আব্বাসের শারীরিক পরীক্ষা করা হচ্ছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর কি রোগ হয়েছে তা জানা যাবে।

এর আগে সোমবার ও মঙ্গলবার বিরল রোগে আক্রান্ত আব্বাসকে নিয়ে বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের প্রকাশিত সংবাদ প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ স্যারের নজরে আসে। এসব সংবাদ দেখার পর বিরল রোগে আক্রান্ত মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার ১৩ বছরের কিশোর আব্বাসের চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেন তিনি।

হাসপাতালের সিইও অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজের নির্দেশ পেয়ে হাসপাতালের পক্ষ থেকে আব্বাসের বাবা রাজ্জাকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। সামগ্রিক বিষয় জানার পর রাজ্জাক আব্বাসকে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালে দেওয়া চিকিৎসা সেবার সুযোগ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত জানান। বুধবার বিকেলে রাজ্জাক তার ছেলে আব্বাসকে নিয়ে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালে আসেন।

ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হসপিটাল কর্তৃপক্ষ আশা করেন খুব দ্রুতই যথাযত চিকিৎসায় আব্বাস স্বাভাবিক হয়ে ওঠবে।

উল্লেখ্য, মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের আলমদস্ত এলাকার রাজ্জাক শেখের একমাত্র ছেলে আব্বাস দীর্ঘদিন ধরে বিরল রোগে আক্রান্ত। দিন দিন তার একটি পা ফুলে অস্বাভাবিক আকার ধারণ করছে। এছাড়া তার শরীর ছোট-বড় আঁচিলে ভরে গেছে। এছাড়া ওই পরিবারে আরো দুইজন অসুস্থ্য রয়েছে।

LEAVE A REPLY