মাদারীপুরে পথিক নবীর গানে মাতোয়ারা দর্শক

94

মাদারীপুর প্রতিনিধি
কনকনে শীত কাপছে চারিপাশ কিছুই যেন নজর নেই দর্শক-শ্রোতাদের। বিকেল থেকে রাত গভীর, গান শোনার আকাঙ্খা যেন কমছে না শ্রোতাদের। শিল্পীও একের পর এক গানের আবেশ ছড়িয়ে দিচ্ছেন পুরো মাঠ জুড়ে। কোন কোন সময়ে অস্থির হয়ে শ্রোতাদের বলতে শোনা যায়, আরও গান চাই আরও গান। এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল মাদারীপুর তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলার শেষ দিনে। শনিবার রাতে মাদারীপুরে গানে মাতোয়ারা করে গেছেন ভিন্ন ধাচের শিল্পী পথিক নবী ও রন্টি দাস।

নিজস্ব ঢংয়ে গান গেয়ে খ্যাতি অর্জন করা শিল্পী পথিক নবী রাত ৮টার পরে মঞ্চে উঠেন। শুরুতেই মঞ্চে উঠে গাইলেন ‘নদীর কুল ছিল না, ঢেউ ছিল না’। মুহুর্তেই দর্শকদের কড়া হাত তালিতে ব্যাপক সাড়া পড়ে যায়। পরে তিনি একে একে গেয়েছেন তার বিখ্যাত গান ‘মাক্ষি গিরা’, ‘ধন্য ধন্য বালিকারে’, ‘আমি তোর বুকের পাজর’, ‘নিশ কালো মেঘ’ এবং ‘উদাসী।’ এসময় ক্ষুদে নৃত্য শিল্পীরা মঞ্চে উঠে নাচ শুরু করেন। হাজারো দর্শক রাত ১০টা পর্যন্ত তার গান উপভোগ করেন। গান আর সুরের মুর্ছানায় দর্শক পায় ভিন্ন স্বাদ। তাই বার বার দর্শকদের কাছ থেকে বলতে শোন যাচ্ছিল ‘ওয়ান মোর, ওয়ান মোর’। প রে তিনি আরো দুটি গান শুনান। মাঝে মাঝে তার রসাত্মক কথায় দর্শকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া পড়েছে।
এছাড়া সন্ধ্যার পর থেকে গান গেয়ে দর্শক মাতিয়ে রাখেন ক্লোজ আপ খ্যাত শিল্পী রন্টি দাস ও স্থানীয় শিল্পীরা।

গানের অনুষ্ঠান শেষে জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। মাদারীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সৈয়দ ফারুক আহমেদ জানান, তিন দিন ব্যাপী লক্ষাধিক লোকের অংশ গ্রহনে সফল উন্নয়ন মেলা হয়েছে। ৮২টি
প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ গ্রহন করে। মেলার প্রথম দিন প্রধান অতিথি ছিলেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মোজাম্মেল হক খান। দ্বিতীয় দিন প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা সংসদ সদস্য রোকসানা ইয়াসমীন ছুটি।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান। মেলায় অধিক জনসমাগম ও সরকারের উন্নয়ন অধিক সংখ্যক জনগন জানতে স্থানীয় শিল্পীর পাশাপাশি অতিথি শিল্পী সঙ্গীত পরিবেশন করেন। প্রথম দিন সাতক্ষীরা শিল্পীবৃন্দ, দ্বিতীয় দিন বিন্দিয়া খান, উপমা এবং ভাটিয়াল ব্যান্ডের সোহাগ এবং তৃতীয় দিনে পথিক নবী ও রন্টি দাস সঙ্গীত পরিবেশন করেন। মেলার সেরা স্টল নির্বাচিত হয় সড়ক ও জনপথ বিভাগ, পিডব্লিউডি ও পাট অধিদপ্তর। মাদারীপুরের সব থেকে সফল উন্নয়ন মেলা আয়োজন করায় জেলা প্রশাসনকে জনসাধারণ ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

 

LEAVE A REPLY