রান্নাঘর খুঁড়ে মারা হয়েছে ১২৫টি গোখরা সাপ

136

রাজশাহী নগরীর বুধপাড়ার গত মঙ্গলবার রাতে একটি বাড়ির শোবার ঘর থেকে ২৭টি বিষধর গোখরা সাপ মারার পর এবার তানোরের একটি বাড়ির রান্নাঘর খুঁড়ে মারা হয়েছে ১২৫টি গোখরা।
বৃহস্পতিবার রাতে তানোর পৌরসভার ভদ্রখন্ড এলাকার কৃষক আক্কাস আলীর বাড়িতে মারা পড়ে এই সাপগুলো।
বাড়ির মালিক আক্কাস আলী জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে তার স্ত্রী রান্না করতে রান্নাঘরে যায়। এসময় সেখানে একটি গোখরা সাপ দেখে চিৎকার করে উঠে সে। চিৎকার শুনে তার দুই ছেলে হাসিবুর রহমান ও আজিবুর রহমান রান্নাঘরে গিয়ে সাপটি মারে। কয়েক মিনিট পরেই তারা দেখতে পায় মাটির তৈরি রান্নাঘরের এক কোনার গর্ত থেকে উঠে আসছে আরও কয়েকটি সাপ। তারা সেগুলোও পিটিয়ে মেরে ফেলে। পরে খবর পেয়ে প্রতিবেশিরা এসে রান্নাঘর খুঁড়ে একে একে ১২৫টি গোখরা সাপ মারেন। এসময় সাপের ১৩টি ডিমও নষ্ট করেন তারা।
এলাকাবাসী জানান, সন্ধ্যার দিকে চেঁচামেচি শুনে তারা আক্কাস আলীর বাড়ি যান। বাড়িতে এসে দেখতে পান বাড়ির রান্নাঘর খোঁড়াখুড়ি চলছে। এসময় প্রচুর সাপ মারা হয়। বেশিরভাগ সাপই এক থেকে দেড়ফুট লম্বা। সম্ভবত কিছুদিন আগেই তারা ডিম ফুটে বেড়িয়েছে। আশেপাশে প্রচুর ইদুরে গর্ত থাকার কারণেই সম্ভবত সেখানে ডিম ফুটিয়েছিলো সাপ।
এ ঘটনার পর থেকেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো এলাকায়। ভয়ে ঘরে যেতেও ভয় পাচ্ছিলেন আক্কাস আলীর পরিবার। এলাকাবাসীর দাবি, এর আগে কখনোই তারা এক জায়গা থেকে এতগুলো সাপ মারার ঘটনা দেখেননি। সাপগুলো মারার পর রান্নাঘরের পাশেই জড়ো করে রাখা হয়।
উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাজশাহী নগরীর বুধপাড়া এলাকার মাজদার আলীর শোয়ার ঘরে একে একে মারা পড়ে ২৭টি গোখরা। ওই বাড়িটিও পুরোনো মাটির বাড়ি। বৃহস্পতিবার রাতে সেখানে আরেকটি গোখরা সাপ মারেন পরিবারের সদস্যরা। এগুলোর অধিকাংশই ছিলো বাচ্চা সাপ।

LEAVE A REPLY