সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া প্রবেশের সময় ২৬৯ রোহিঙ্গা উদ্ধার, শতাধিকের সলিল সমাধি!

26

উন্নত জীবনযাপনের লোভে মুত্যুর ঝুকি নিয়ে প্রায় ৪ মাস সমুদ্র পাড়ি দিয়ে অবৈধভাবে মালয়েশিয়ায় প্রবেশের সময় অভিবাসন প্রত্যাশী ২৬৯ জন মায়ানমারের জাতি গোষ্ঠী (রোহিঙ্গা) নারী পুরুষ কে উদ্ধার করেছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এর মধ্যে একজন রোহিঙ্গার মৃতদেহ ও রয়েছে। এই সমুদ্র যাত্রায় আরো শতাধিক রোহিঙ্গার সাগরেই সলিল সমাধি হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

সোমবার(৮ ই জুন) এই তথ্য নিশ্চিত করে দেশটির অনলাইন সংবাদ মাধ্যম হারিয়ান মেট্রোর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে , বিগত ৪ মাস আগে কক্সবাজার উপকুল থেকে আন্তর্জাতিক মানব পাচারকারীর সহযোগিতায় প্রায় ৫০০ জন রোহিঙ্গা নারী, শিশু, পুরুষ বোঝাই একটি ট্রলার মালয়েশিয়ার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। বিভিন্ন প্রতিকুল পরিস্থিতির মূখে পড়ে গতকাল ভোররাতে মালয়েশিয়ার লংকাউভির নিবং উপকূল দিয়ে দেশটিতে প্রবেশের সময় নৌবাহিনী প্রথম তাদের উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে । ২৬৯ জন রোহিঙ্গার মধ্যে ৮০ জন পুরুষ, ১৩৮ জন নারী এবং ৫১ জন শিশু রয়েছে।

রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকা টি জ্বালানি ফুরিয়ে যাওয়ার পর অন্য একটি নৌকায় করে তাদের স্থলভাগে নিয়ে আসা হয়। ২৬৯ অভিবাসী কে উদ্ধার করা হলেও ধারনা করা হচ্ছে বাকি প্রায় ২ শতাধিক রোহিঙ্গার সমুদ্রেই সলিল সমাধি হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, মানবপাচারকারী চক্রটি বড় নৌকা করে প্রায় ৪ মাস সমুদ্রে অবস্থান করার পর দেশটিতে প্রবেশ করতে সমর্থ হয় এবং এসময় মালয়েশিয়া প্রবেশের সময় নৌবাহিনীর প্রতিরোধের মুখে পড়তে হয়। উদ্ধারকৃত অধিকাংশ অভিবাসী অসুস্থ ছিলো। পরে তাদের শরনার্থী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য লংকাউয়ি প্রদেশের উলু মেলাকার শরনার্থী ক্যাম্পে নিয়ে রাখা হয়েছে।

LEAVE A REPLY