৪৫ রানের ছোটো লক্ষ্য সহজেই পেরিয়ে রংপুর রাইডার্স ৯ উইকেটে জয়ী

321

১২ ওভার হাতে রাখা রংপুরের জয়টি ৯ উইকেটের। আগের ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংসকে একই ব্যবধানে হারিয়েছিল তারা।

বৃহস্পতিবার ১০ ওভার ৪ বলে ৪৪ রানে অলআউট হয়ে যায় খুলনা। বিপিএলে এটাই সর্বনিম্ন রান এবং সবচেয়ে কম ওভারে অলআউট হওয়ার রেকর্ড। জবাবে ৮ ওভারে মোহাম্মদ শাহজাদকে হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় রংপুর।

গত আসরে সিলেট সুপারস্টার্সের বিপক্ষে বরিশাল বুলসের ৫৮ ছিল আগের সর্বনিম্ন। সেই আসরেই রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে ১১ ওভার ৫ বলে অলআউট হয়েছিল সিলেট।

ছোট লক্ষ্য তাড়ায় কোনো তাড়াহুড়া করেনি রংপুর। ১৬ রানে জুনায়েদ খানকে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে শাহজাদের বিদায়ের পর মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে বাকি কাজটুকু সহজেই সারেন সৌম্য সরকার।

১৩ রানে অপরাজিত থাকেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সৌম্য। চার হাঁকিয়ে দলকে জয় এনে দেওয়ার সময় ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন মিঠুন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় বলেই নিকোলাস পুরানকে হারায় খুলনা। অফ স্পিনার সোহাগ গাজীর স্টাম্পের বল শাফল করে খেলতে গিয়ে বোল্ড হন নিকোলাস পুরান।

নিজের দোষে আউট হন আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান আব্দুল মজিদ। এক রান নিতে গিয়ে শেষের দিকে হঠাৎ মন্থর হয়ে সোহাগের সরাসরি থ্রোয়ে রান আউট হন তিনি। তখনও বোঝা যায়নি কী অপেক্ষা করছে খুলনার সামনে।

তিন বলের মধ্যে মাহমুদউল্লাহ, রিকি ওয়েসেলস ও অলক কাপালীকে হারিয়ে হঠাৎ করেই ভীষণ বিপদে পড়ে যায় খুলনা। চতুর্থ ওভারের শেষ বলে মাহমুদউল্লাহকে ফিরিয়ে দেন রিচার্ড গ্লিসন। পরের ওভারের প্রথম দুই বলে ওয়েলসস ও কাপালীর উইকেট নেন আফ্রিদি। এই লেগ স্পিনারের হ্যাটট্রিক ঠেকিয়ে দেন আরিফুল হক।

১৫ রানে ৫ উইকেট হারানোর ধাক্কা আর সামাল দেওয়া সম্ভব হয়নি। দুটি করে চার হাঁকানো শুভাগত হোম চৌধুরী ও নূর আলমকে আউট করেন আফ্রিদি।

২ ওভার ৪ বল করে কোনো রান না দেওয়া সানি ৩ উইকেট নিয়ে দ্রুত গুটিয়ে দেন খুলনাকে। আরিফুলকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে নেন নিজের প্রথম উইকেট। বাঁহাতি স্পিনারের পরের দুই শিকার জুনায়েদ ও মোহাম্মদ আসগর।

১২ রানে চার উইকেট নেন আফ্রিদি। ন্যূনতম ১২ বল করেছেন এমন বোলারদের মধ্যে একমাত্র সানিই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে কোনো রান না দিয়ে একাধিক উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

খুলনা টাইটানস: ১০.৪ ওভারে ৪৪ (মজিদ ৬, পুরান ০, ওয়েসেলস ৫, মাহমুদউল্লাহ ২, শুভাগত ১২, কাপালী ০, আরিফুল ৭, নূর আলম ৮, জুনায়েদ ০, আসগর ০, শফিউল ০; সোহাগ ১/৬, রুবেল ০/৮, সানি ৩/০, গ্লিসন ১/১৪, আফ্রিদি ৪/১২)

রংপুর রাইডার্স: ৮ ওভারে ৪৫/১ (শাহজাদ ১৩, সৌম্য ১৩*, মিঠুন ১৫*; জুনায়েদ ১/১৪, আসগর ০/৬, শুভাগত ০/১০, নূর আলম ০/১৫)

ফল: রংপুর রাইডার্স ৯ উইকেটে জয়ী

LEAVE A REPLY