কালো ঠোঁট সুন্দর ও আকর্ষণীয় করবেন যেভাবে !

336

নিজেকে উপস্থাপনের জন্য নিঃসন্দেহে ঠোঁট একটি প্রাসঙ্গিক ব্যাপার। কিন্তু আপনার সৌন্দর্য্যের এই হাতিয়ারকে যদি কালো দেখায় তাহলেই বিপদ, কি বলেন?
প্রথমত, আপনার যদি ধূমপানের অভ্যাস থাকে, তবে তা এখনই ছাড়তে হবে। এর কোন বিকল্প নেই। দিনে দু’বারের বেশি চা বা কফি পান থেকে বিরত থাকুন। অ্যালকোহল এড়িয়ে চলুন লেবুর রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে ঠোঁটে লাগাতে পারেন। এতে ঠোঁটের কালোভাব দূর হবে।

ধনেপাতার রসও ঠোঁটের কালোভাব দূর করে। একটা লেবুর অর্ধেক কেটে তার উপর দুই ফোঁটা মধু দিয়ে বৃত্তাকারে ঠোঁটে ম্যাসাজ করতে হবে। এরপর বরফ জলে ঠোঁট ধুয়ে ফেললে ভালো ফল পাওয়া যায়।
সকালে দাঁত ব্রাশ করার সময় হালকা করে সাবধানে ঠোঁটও ব্রাশ করতে পারেন। এতে ঠোঁটের মরা কোষ ঝরে যায়।
মুলতানি মাটি, কয়েক ফোঁটা মধু ও কাঁচা দুধ মিশিয়ে ঠোঁটে লাগালে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হবে।

ঠোঁটের কোনা অনেক সময় কালো হয়ে যায়, শসা ও পাতিলেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে দিনে ৩-৪ বার ঠোঁটে লাগালে উপকার পাবেন।
প্রতিদিন গ্লিসারিন, অলিভ অয়েল, মধু ও গোলাপ জল একসঙ্গে মিশিয়ে লাগালে ঠোঁটের উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।
রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে নারিকেলের তেলের সঙ্গে বাদাম তেল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান। সপ্তাহে দু’দিন এই প্যাকটি ব্যবহার করুন। কালো দাগ দূর হবে।
দিনে কমপক্ষে আট গ্লাস পানি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

ঠোঁটে লিপিস্টিক বা অন্য কিছু ব্যবহারের আগে সেটার মান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন।

উপরের নিয়ম গুলো মেনে চললে খুব সহজেই কালো ঠোঁট সুন্দর ও আকর্ষণীয় করতে পারবেন।

LEAVE A REPLY