সাফল্যের জন্য ২০১৭ নয়, ২০১৮ সালের পরিকল্পনা করুন

163

রঙটিভি ডেস্ক: আপনি যদি জীবনে সাফল্য চান তাহলে স্বল্পমেয়াদী নয় বরং দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা করতে হবে। আর এ পরিকল্পনা কেমন হওয়া উচিত সে সম্পর্কে মনোবিদ বেনজামিন পি. হার্ডি জানিয়েছেন, এটি হওয়া উচিত কিছুটা পরের।

একেবারে কাছাকাছি লক্ষ্য নির্ধারণ করলে তা বাস্তবায়ন হবে না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ইন্ডিপেনডেন্ট।

হ্যারি পটার বই লিখে খ্যাতি অর্জন করেছেন লেখক জেকে রাউলিং। তিনি এ বইটি লেখা শুরুর আগে দীর্ঘদিন ধরে পরিকল্পনা করেছেন।

দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করলেও তা বাস্তবায়নের জন্য একেবারেই দেরি করা উচিত নয় বলে মনে করেন মি. হার্ডি। তিনি বলেন, ‘আপনি যা করছেন তার সবই হলো অবস্থান তৈরি করা। আপনি কি আপনার অবস্থান তৈরি করেছেন আগামী এক, তিন কিংবা পাঁচ বছর পরের?’

অনেকেই নতুন বছরে নানা ধরনের কাজ করার পরিকল্পনা করেন। বাস্তবে এসব কাজ আর কখনোই করা হয় না। এ বিষয়গুলোকে ‘সিদ্ধান্ত নেওয়া’ হিসেবে বলা যায়। যদিও এগুলো বাস্তবে রূপদান করা হয় না অধিকাংশ ক্ষেত্রেই।

আর এর কারণ হিসেবে রয়েছে আগ্রহ হারিয়ে ফেলা। তাই পরিকল্পনা ঠিক পরিকল্পনার স্থানেই রয়ে যায়। বাস্তবে রূপদান হয় না।
কিন্তু আপনি যদি পরবর্তী বছরে কী হতে চান সে পরিকল্পনা এখনই শুরু করেন তাহলে তা বাস্তবায়নের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া সহজ। আর এর পেছনে আপনি যদি সর্বশক্তি নিয়োগ করেন তাহলে তা বাস্তবায়ন হওয়াও সম্ভব।

অনেকেই নিজের সম্পর্কে পর্যাপ্ত জ্ঞান রাখেন না। নিজের কর্মতৎপরতা, জ্ঞান ও নিষ্ঠা সম্পর্কে নিজেরই জানা থাকে না। আর এ কারণে প্রত্যেকেরই উচিত নিজেকে মোটিভেশন করা। এজন্য নিজের সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকতে হবে এবং দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা তৈরি ও তা বাস্তবায়নের জন্য লেগে থাকতে হবে বলে মনে করেন এই মনোবিদ।

LEAVE A REPLY